1. successrony@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailykhabor24.com : Daily Khabor : Daily Khabor
সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ১২:৪৫ অপরাহ্ন

‘বিয়ে পাগলা’ ইমনের তৃতীয় স্ত্রীর মামলায় চার্জশিট

ডেইলি খবর নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৫৮ বার পড়া হয়েছে

ডেইলি খবর ডেস্ক: বিয়ে পাগলা ইমনের বিরুদ্ধে তৃতীয় স্ত্রীর মামলায় চার্জশিট। তৃতীয় স্ত্রী হৃদিতা রেজার দায়ের করা যৌতুক ও নির্যাতন মামলায় সংগীত পরিচালক শওকত আলী ইমনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দিয়েছে পুলিশ। ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সম্প্রতি এই চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রমনা থানার পুলিশের পরিদর্শক তাহমিনা আক্তার তৃণা। চার্জশিটে শওকত আলী ইমনের বিরুদ্ধে যৌতুক হিসেবে ১০ লাখ টাকা দাবি করা এবং টাকা দিতে অস্বীকার করলে হৃদিতাকে মারপিট করে বাসা থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ উল্লেখ করা হয়েছে। শুক্রবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) এসআই মো: শরীফুল ইসলাম গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানিয়েছেন। চার্জশিট দাখিলের পর মামলাটি পরবর্তীতে বিচারের জন্য ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ৬-এ বদলির আদেশ দেন ঢাকার সিএমএম আদালতের বিচারক।

মামলাটি প্রমাণের জন্য চার্জশিটে ৯ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে। আগামী রোববার (৩ জানুয়ারি) এ মামলার দিন ধার্য রয়েছে। চার্জশিটে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার তৃণা উল্লেখ করেন,আসামি শওকত আলী ইমন একজন যৌতুক লোভী ও মারমুখী লোক। গত ২৭ ফেব্রæয়ারি ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক হৃদিতা রেজাকে বিয়ে করেন তিনি। বিয়ের পর থেকে আসামি ইমন তার স্ত্রী হৃদিতা রেজার কাছে যৌতুক দাবি করে তাকে মারপিট ও মানসিক নির্যাতন করে আসছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে প্রকাশ পায়।তার ধারাবাহিকতায় গত ৩ জুলাই রাত সাড়ে ১১টার দিকে আসামি ইমন তার বাসা রমনা থানাধীন ইস্কাটন গার্ডেনের বাসায় পুনরায় বাদিনীর (হৃদিতা) কাছে যৌতুক হিসেবে ১০ লাখ টাকা দাবি করেন। হৃদিতা রেজা যৌতুক দিতে অস্বীকার করলে আসামি ইমন তাকে মারপিট করে বাসা থেকে বের করে দেন। এর আগে গত ২০ সেপ্টেম্বর হৃদিতা রেজা বাদী হয়ে রমনা থানায় যৌতুকের দাবিতে মারধরের ঘটনায় স্বামী শওকত আলী ইমনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় ১০ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে নির্যাতনের অভিযোগ আনা হয়।

এরপর ২৫ সেপ্টেম্বর ইমনকে ইস্কাটনের বাসা থেকে গ্রেফতার করে রমনা থানা পুলিশ। পরের দিন তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। পরে ১ অক্টোবর ইমনের আইনজীবীর জামিন আবেদনের প্রেক্ষিতে মুচলেকা দিয়ে শওকত আলী ইমন জামিন পান। এর আগে দ্বিতীয় স্ত্রী নৃত্যশিল্পী জিনাত কবির তিথির এক মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেল খেটেছিলে ইমন।

উল্লেখ্য, ইমনের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের অভিযোগ নতুন কিছু নয়। শওকত আলী ইমন ২০২০ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের সংবাদ পাঠিকা হৃদিতা রেজাকে বিয়ে করেন। এটি ছিল তার তৃতীয় বিয়ে। প্রথম স্ত্রী অভিনেত্রী বিজরী বরকতউল্লাহর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর তিনি ২০১২ সালের ৬ ডিসেম্বর নৃত্যশিল্পী জিনাত কবির তিথিরকে বিয়ে করেন। কিন্তু তিথিরের সঙ্গেও তার বিচ্ছেদ হয়ে যায়। বিচ্ছেদের পর আপত্তিকর ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি ও চাঁদা দাবির অভিযোগে রমনা থানায় এ মামলা হয়।

এ জাতীয় আরো খবর