1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : Daily Khabor : Daily Khabor
  3. [email protected] : rubel :
  4. [email protected] : shaker :
  5. [email protected] : shamim :
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:৩৪ পূর্বাহ্ন

অর্থবছরের শুরুতেই রাজস্ব আদায়ে বড় ধস

ডেইলি খবর নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় শনিবার, ২৮ আগস্ট, ২০২১
  • ৮৭ বার পড়া হয়েছে

বড় ধরনের রাজস্ব ঘাটতি নিয়ে শুরু হয়েছে ২০২১-২২ অর্থবছর। দেশের অর্থের জোগানদাতা রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) অর্থবছরের প্রথম মাসে ৭ হাজার ২২৭ কোটি টাকার রাজস্ব ঘাটতির মুখে পড়েছে। করোনাকালে ব্যবসায়িক মন্দা, সক্ষমতা বিবেচনায় না নিয়ে অবাস্তব লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ, মনিটরিংয়ের অভাবসহ নানা কারণে রাজস্ব ঘাটতি তৈরি হয়েছে বলে মনে করেন অর্থনীতিবিদরা।

এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, গত অর্থবছরে বড় ঘাটতি থাকার পরও ২০২১-২২ অর্থবছরে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা আগের মতোই ৩ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়। সেই হিসেবে জুলাইয়ে এনবিআরের রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২১ হাজার ৬১ কোটি টাকা। কিন্তু আলোচ্য সময়ে রাজস্ব আদায় হয়েছে ১৩ হাজার ৮৩৩ কোটি টাকা। অর্থাৎ প্রথম মাসেই রাজস্ব ঘাটতি ৭ হাজার ২২৭ কোটি টাকা। জুলাই মাসে রাজস্ব আদায়ের গড় প্রবৃদ্ধি হয়েছে মাইনাস ৬ দশমিক ২৪ শতাংশ।

 

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, করোনাকালে বৈশ্বিক মন্দা বিরাজ করছে। পৃথিবীর শক্তিশালী অর্থনীতির দেশগুলো পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে কোনো কিছু বিবেচনায় না নিয়ে অবাস্তব লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করায় প্রথম মাসেই বড় ঘাটতির মুখে পড়েছে এনবিআর।

এনবিআর সূত্র জানায়, নতুন অর্থবছরের প্রথম মাস অর্থাৎ জুলাই মাসে এনবিআরে ভ্যাট আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭ হাজার ৬৮০ কোটি টাকা। আলোচ্য সময়ে ভ্যাট আদায় হয়েছে ৪ হাজার ৭৩২ কোটি টাকা। অর্থাৎ ভ্যাটে ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৪৪৫ কোটি টাকা। আয়করে প্রথম মাসের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৫ হাজার ৯২৫ কোটি টাকা, আদায় হয়েছে ৪ হাজার ৭৩২ কোটি টাকা। অর্থাৎ প্রথম মাসেই আয়করে ঘাটতি ১ হাজার ১৯৩ কোটি টাকা। আর কাস্টমসে এই খাতে জুলাই মাসের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭ হাজার ৪৫৬ কোটি টাকা, আদায় হয়েছে ৪ হাজার ৯৬৬ কোটি টাকা। অর্থাৎ শুল্ক খাতে প্রথম মাসে ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৫৮৯ কোটি টাকা।

এনবিআর সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অর্থ মন্ত্রণালয় প্রতিবছর একটা নতুন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে দেয়। সক্ষমতা বিবেচনায় না নিয়েই প্রতিবছর বাড়িয়ে বাড়িয়ে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। এনবিআরের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, রাজস্ব আদায়ে বিশেষ করে ভ্যাট ও কাস্টমসে রাজস্ব আদায়ে মনিটরিংয়ের চরম ঘাটতি রয়েছে। যারা রাজস্ব ফাঁকি দেওয়ার প্রবণতা রয়েছে অথবা যারা করোনার সুযোগে রাজস্ব ফাঁকি দিচ্ছেন তাদের চিহ্নিত করে সরকারের রাজস্ব আদায় নিশ্চিত করতে হবে বলে মনে করেন এই কর্মকর্তা।

রাজস্ব আদায় কম হওয়ার বিষয়ে কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের (ঢাকা দক্ষিণ) কমিশনার সৈয়দ মুসফিকুর রহিম বলেন, জুলাই মাস পুরোটাই কঠোর বিধিনিষেধ ছিল। আগটের ১১ তারিখ থেকে মার্কেট খুলেছে। এখন মার্কেটে মানুষের আনাগোনা বেশি হলেও কেনাকাটা কম। এসব কারণে মূলত ভ্যাট আহরণের গতি কিছুটা কমেছে বলে মনে করেন এই ভ্যাট কমিশনার।

বিজ্ঞাপন

এ জাতীয় আরো খবর