1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : Daily Khabor : Daily Khabor
  3. [email protected] : shaker :
  4. [email protected] : shamim :
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:২১ পূর্বাহ্ন

একই নারীকে ‘সেক্সটিং’ করে চাকরি হারিয়েছেন পেইনের দুলাভাইও

ডেইলি খবর নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় সোমবার, ২২ নভেম্বর, ২০২১
  • ১২ বার পড়া হয়েছে

অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটে ডালপালা গজাতে শুরু করেছে সেক্সটিং কেলেংকারি। এরই মধ্যে সেক্সটিং কেলেংকারি ছড়িয়ে পড়ায় অস্ট্রেলিয়া টেস্ট দলের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিয়েছেন টিম পেইন। এবার একই কাণ্ডে জড়িয়ে গেছে তার বোনের স্বামী শ্যানন টাবের নাম।

২০১৭-১৮ মৌসুমের অ্যাশেজ সিরিজ শুরুর আগে ক্রিকেট তাসমানিয়ার এক নারীকর্মীকে যৌন উত্তেজক বার্তার সঙ্গে নিজের যৌনাঙ্গের ছবি পাঠিয়েছিলেন পেইন। তখনই সেক্সটিংয়ের অভিযোগ এনে ক্রিকেট তাসমানিয়া ও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ায় এ বিষয়টি জানিয়েছিলেন সেই নারী।

কিন্তু ক্রিকেট তাসমানিয়া ও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কারও কাছেই তখন মনে হয়নি যে পেইন আচরণবিধি ভেঙেছেন! পেইনকে তারা কোনো ধরনের শাস্তি না দিয়েই ছেড়ে দেয়। যদিও পরে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া জানিয়েছে, তখন পেইনকে কোনো শাস্তি না দিয়ে ছেড়ে দেওয়া তাদের ভুল ছিল।

এই ঘটনা নতুন করে সামনে আসায়ই মূলত অধিনায়কত্ব ছেড়েছেন পেইন। তবে এখন নতুন খবর হলো, পেইনের সেই ঘটনার কাছাকাছি সময়ে সেই একই নারীকে যৌন উত্তেজক বার্তা পাঠিয়েছেন তার দুলাভাই শ্যানন টাবও। যে কারণে তখন ক্রিকেট তাসমানিয়ার চাকরিও হারিয়েছেন এ সাবেক প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার।

দ্য হেরাল্ড সানের বরাত দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, যে নারীকে সেক্সটিংয়ের অভিযোগ উঠেছে পেইনের বিরুদ্ধে, সেই একই নারীকে প্রায় একই ধরনের বার্তা পাঠিয়েছিলেন টাবও। যে কারণে তখন তদন্ত শুরু হওয়ার টাবকে ক্রিকেট তাসমানিয়ার চাকরি থেকেও বরখাস্ত করা হয়।

ক্রিকেট তাসমানিয়ার চাকরি হারানোর পর এডিলেইডের প্রিন্স আলফ্রেড কলেজের মূল দলের কোচিংয়ের দায়িত্ব নেন টাব। গত আগস্টে গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া একাদশের কোচ হতে চলেছেন এ বাঁহাতি চায়নাম্যান বোলার। তা এখন প্রায় অসম্ভবই বলা চলে।

টাবের এই সেক্সটিং কেলেংকারির বিষয়ে ২০১৮ সালের মাঝামাঝি সময়ে তদন্ত করেছে ক্রিকেট তাসমানিয়া। যেমনটা টিম পেইনের বেলায় করেছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও। কিন্তু পেইন বা টাবকে এ বিষয়ে কোনো শাস্তি দেওয়া হয়নি।

সম্প্রতি হেরাল্ড সানের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে টাব বলেছেন, ‘আমি দুঃখিত, এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করব না।’ আর ক্রিকেট তাসমানিয়া বলেছে, ‘এ ব্যাপারে কোনো প্রশ্নের জবাব আমরা দেব না।’ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া অবশ্য জানিয়েছে, টাবের ওপর করা তদন্তের ব্যাপারে তাদের জানানো হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

এ জাতীয় আরো খবর