1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : Daily Khabor : Daily Khabor
  3. [email protected] : shaker :
  4. [email protected] : shamim :
মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:২১ অপরাহ্ন

কানাডায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি

ডেইলি খবর নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় রবিবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২০
  • ৮৩ বার পড়া হয়েছে

এবার দুর্গাপূজা শুরু হচ্ছে এক মাস পর; অর্থাৎ আগামী ২১ অক্টোবর থেকে। এদিন দেবীর বোধন।

বরফাচ্ছন্ন কানাডার ক্যালগেরিতে আনন্দ উৎসবের মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হবে আগামী ২১ অক্টোবর থেকে।

কিন্তু এবারের আয়োজনে প্রবাসী বাংলাদেশীরা করোনাকালে শুধু ধর্মীয় রীতিনীতি মেনে পূজা-অর্চনার মাধ্যমে মন্দির প্রাঙ্গণের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে সব আয়োজন। বয়স্ক ব্যক্তি ও শিশু এবার পূজায় আসতে পারবে না। তাদের জন্য ভার্চুয়ালি অঞ্জলির ব্যবস্থা থাকবে সব আয়োজনে।

এবার দুর্গাপূজায় স্বাস্থ্যবিধি ও গাইডলাইন কঠোরভাবে পুণ্যার্থীদের মেনে চলতে হবে। এর মধ্যে মন্দির প্রাঙ্গণে নারী-পুরুষের প্রবেশ ও বের হওয়ার পথ আলাদা থাকবে।

এ ছাড়া পূজামণ্ডপে আসা ব্যক্তিরা নির্দিষ্ট দূরত্ব (কমপক্ষে দুই মিটার) বজায় রেখে লাইন ধরে সারিবদ্ধভাবে প্রবেশ করবেন এবং প্রণাম শেষে বের হয়ে যাবেন।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নির্দেশক্রমে পুষ্পাঞ্জলি প্রদানের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে এবং ভক্তের সংখ্যা অধিক হলে একাধিকবার পুষ্পাঞ্জলির ব্যবস্থা করতে হবে।

পূজাণ্ডপে আসা সবার মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। মাস্ক না পরে এলে কাউকে পূজামণ্ডপে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। এ ছাড়া মন্দিরের প্রবেশ পথে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা সাবান দিয়ে হাত ধোয়া এবং তাপমাত্রা পরিমাপের জন্য থার্মাল স্ক্যানারের ব্যবস্থা থাকবে।

গত বছরের মতো এ বছর আলোকসজ্জ্বা হবে না পূজামণ্ডপে। নানা মাত্রিক আচার অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শারদীয় উৎসবে চলবে দেবী দুর্গার আরাধনা।

ক্যালগেরির ‘আমরা সবাই’-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রূপক দত্ত বলেন, আসছে শুভ দিনে মায়ের আশীর্বাদে দেশে ও বিশ্বের মধ্যে শান্তি বিরাজ করবে, আগামী দিনগুলো আরও সুন্দর হয়ে উঠবে, করোনাসহ সব জড়াব্যাধি, পাপ ও পঙ্কিলতা দূর হয়ে মানুষের মধ্যে শান্তি ফিরে আসবে এমনটিই আমাদের প্রত্যাশা।

ক্যালগেরি বঙ্গীয় পরিষদের সাবেক সভাপতি, বিশিষ্ট রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী কিরণ বণিক শংকর বলেন, ক্যালগেরি বঙ্গীয় পরিষদ এই শহরে সর্বপ্রথম এবং সর্ববৃহৎ পূজার আয়োজন করে আসছে। কিন্ত এবার ভিন্ন প্রেক্ষাপটে পূজা হবে।

বাংলাদেশ পূজা পরিষদ অব ক্যালগেরির এক্সকিউটিভ কমিটির সদস্য প্রকৌশলী সুব্রত বৈরাগী বলেন- দুর্গতি বিনাশ করার জন্য দেবীর আবির্ভাব। তাই দেবীর নামকরণ ‘দুর্গা’। আমরা বিশ্বাস করি, দেবী সর্বত্র আছেন, মঙ্গলের বার্তা দিয়ে তিনি পৃথিবীকে শান্তিময় করে তুলবেন।

বিজ্ঞাপন

এ জাতীয় আরো খবর