1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : Daily Khabor : Daily Khabor
  3. [email protected] : shaker :
  4. [email protected] : shamim :
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৬:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
অক্টোবরের শেষে ফেসবুকের নাম বদল সরকারি চাকরির প্রশ্ন ফাঁসে সর্বোচ্চ ১০ বছর কারাদণ্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব, বিভ্রান্তি ছড়ালেই ব্যবস্থা স্ত্রী ও ভাইয়ের হিসাবে কোটি কোটি টাকা লেনদেন অডিট রিপোর্টের ওপর নির্ভর করছে ইভ্যালির ভাগ্য স্বাস্থ্যে চাকরি করে নজরুলের সম্পদ হয়েছে ৬ কোটি ১৭ লাখ টাকা মাত্র পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী আজ ফাইন্যান্সিয়াল টাইমসে প্রধানমন্ত্রীর নিবন্ধ: উন্নত দেশগুলো ক্ষতিগ্রস্থদের গুরুত্ব দিচ্ছে না ই-কমার্স প্রতারণা:১১ প্রতিষ্ঠানের অ্যাকাউন্টে মাত্র ১৩৬ কোটি,গ্রাহকের পাওনা ৫ হাজার কোটি টাকা বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ের ৪২ হাজার ২৯৮টি পদ বিলুপ্ত

নামাজ পড়া অবস্থায় প্রস্রাবের চাপ এলে করণীয়

ডেইলি খবর নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৯ বার পড়া হয়েছে

কখনও কখনও নামাজের পূর্বপ্রস্তুতি সত্ত্বেও মসজিদে জামাত শুরু হওয়ার পর প্রস্রাবের প্রয়োজন দেখা দেয়। এ ক্ষেত্রে লক্ষণীয় হচ্ছে, প্রস্রাবের চাপ যদি এত কম হয়, যার কারণে নামাজে খুশু-খুজু বিনষ্ট হয় না, তবে ওই অবস্থায় নামাজ পড়া দোষণীয় নয়। কিন্তু যদি চাপ এত বেশি থাকে যে, মনোযোগ সহকারে নামাজ পড়া কঠিন হয়ে যায়, তবে সেক্ষেত্রে জামাত ছেড়ে দিয়ে আগে জরুরত সেরে নিতে হবে। এর পর অজু করে একাকী বা জামাতে নামাজ পড়া যাবে। কারণ বেশি চাপ নিয়ে নামাজ পড়া মাকরুহ। এতে নামাজের খুশু-খুজু নষ্ট হয়।

নবী করিম (সা.) বলেন, ‘আল্লাহ ও পরকালের বিশ্বাসী ব্যক্তির জন্য প্রস্রাবের চাপ থেকে স্বস্তি লাভ করা পর্যন্ত নামাজ পড়া বৈধ নয়।’ (আবু দাউদ : ৯১)। অন্যত্র বর্ণিত হয়েছে, নবীজি (সা.) বলেন, মসজিদে নামাজের জামাত শুরু হওয়ার পর তোমাদের কারও শৌচাগারে যাওয়ার প্রয়োজন দেখা দিলে সে যেন প্রথমে তা সেরে নেয়।’ (আবু দাউদ : ৮৮)। (মুসলিম : ৫৬০; শরহে মুসলিম, ইমাম নববী : ৫/৪৬; আলবাহরুর রায়েক ২/৩৩; রদ্দুল মুহতার : ১/৬৪১)

বিজ্ঞাপন

এ জাতীয় আরো খবর