1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : Daily Khabor : Daily Khabor
  3. [email protected] : rubel :
  4. [email protected] : shaker :
  5. [email protected] : shamim :
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:২১ অপরাহ্ন

বিশ্বব্যাংক থেকে প্রথম কিস্তিতে মিলবে ২৫ কোটি ডলার ঋণ

ডেইলি খবর নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৩ বার পড়া হয়েছে

বিশ্বব্যাংক থেকে আপাতত প্রথম কিস্তি হিসেবে বাংলাদেশ ২৫ কোটি ডলার ঋণ পাচ্ছে। পাঁচ বছরের রেয়াতকালসহ এই ঋণ দেওয়া হবে ৩০ বছরের জন্য। যার সুদ হবে ২ শতাংশ। আগামী দুই বছরের মধ্যে আরও ৭৫ কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার বিষয়ে সম্মত হয়েছে বিশ্ব ব্যাংক। তবে কোনো কোনো প্রকল্পের অর্থায়নের জন্য সমীক্ষা চালাতে চায় বিশ্বব্যাংক। রোববার সফররত বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রাইজার অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব ড. শরীফা খানের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করেন। তবে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে ঋণ দেওয়ার বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেন।

বাংলাদেশ বিশ্বব্যাংক থেকে করোনা পরবর্তী অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে ১০০ কোটি ডলার ঋণ চায়। এ ছাড়া বাজেট সহায়তার জন্য এই ঋণ যুক্ত হবে। যার পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ব ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে প্রথম কিস্তি হিসেবে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার বিষয়ে সম্মত হন। বিশ্ব ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে বৈঠক করেন। বৈঠকে বাংলাদেশের সার্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনায় তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন। বিশেষ করে করোনাকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের কার্যক্রমে ভূয়সী প্রশংসা করেন। অর্থমন্ত্রী ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে বাংলাদেশের ওপর কী ধরনের প্রভাব পড়েছে, তা অবহিত করেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে। বিশ্ব ব্যাংক প্রথম কিস্তি হিসেবে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার বিষয়ে সম্মত হয়েছে। আমরা বিশ্ব ব্যাংককে ঢাকা বিউটিফিকেশনের জন্য সহায়তা চেয়েছি। এই প্রকল্পের আওতায় ঢাকার চারপাশে বৃত্তাকার নৌপথগুলোর নাব্য নিশ্চিত করা হবে। এ ছাড়াও পরিবেশগত পুনরুদ্ধার বিষয়ে সহায়তা চাওয়া হয়েছে। মন্ত্রী বিশ্ব ব্যাংক থেকে এ পর্যন্ত কী পরিমাণ ঋণ ও অনুদান পাওয়া গেছে তার একটি খতিয়ান তুলে ধরেন। পাশাপাশি বাংলাদেশ কী পরিমাণ ঋণ পরিশোধ করেছে সে বিষয়টিও উল্লেখ করেন। তিনি আরও উল্লেখ করেন, ২০১৯ সালে এপ্রিল মাসে এক বিলিয়ন বাজেট সাপোর্ট পেয়েছি। চলতি বছরে বাজেট সাপোর্ট পাওয়া যাবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘২০২৩ থেকে ২০২৭ অর্থবছরের জন্য কান্ট্রি পার্টনারশিপ ফ্রেমওয়ার্ক তৈরি করা হচ্ছে। এ ছাড়াও বাংলাদেশের জন্য কনসেনশনাল আইডিএ ঋণ চাওয়া হয়েছে। বিশ্বব্যাংক আমাদের পাশে সবসময় ছিল। তাদের হাত ধরে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাব।

বিজ্ঞাপন

এ জাতীয় আরো খবর