1. successrony@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailykhabor24.com : Daily Khabor : Daily Khabor
  3. shaker@dailykhabor24.com : shaker :
শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০১:৪০ পূর্বাহ্ন

বিএনপি’র সমাবেশ থেকে হুঁশিয়ারি

ডেইলি খবর নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৭ বার পড়া হয়েছে

মামলা-হামলা করে আওয়ামী লীগকে রক্ষা করা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি’র নেতারা। সাবেক প্রেসিডেন্ট ও বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের রাষ্ট্রীয় খেতাব ‘বীর উত্তম’ বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপি’র বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশে এ কথা বলেন তারা। গতকাল বুধবার সকাল ১০টা থেকে এই সমাবেশ শুরু হয়। বেলা একটার দিকে সমাবেশ শেষ হয়। সমাবেশকে ঘিরে গতকাল সকাল থেকে প্রেস ক্লাবের চারপাশের এলাকায় ছিল কড়া নিরাপত্তা। রাজধানীর পুরানা পল্টন মোড়, আবদুল গনি সড়ক, কদম ফোয়ারা ও সেগুনবাগিচা এলাকায় ব্যারিকেড দিয়ে চলাচল সীমিত করে দেয় পুলিশ। প্রত্যেকটি মোড়েই সাধারণ মানুষকে তল্লাশি করতে দেখা যায়। সমাবেশে আসা এবং ফেরার পথে বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে অভিযোগ করেছে দলটি।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান বলেন, বিগত ২০১৮ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গায়ের জোরে ক্ষমতায় থাকার জন্য ৩০শে ডিসেম্বরের ভোট ২৯ তারিখ রাতে ডাকাতি করা হয়েছে। আজকে এজন্যই এই সরকার জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। আমরা বলেছি, এই সরকার যদি শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের চিন্তা করে তবে এই সরকারের হাত জ্বলে-পুড়ে ছারখার হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, এই সরকারকে আর নির্বাচন করার সুযোগ দেয়া হবে না। আর আগের রাতে ভোট ডাকাতির সুযোগ দেয়া হবে না। তার আগেই এই সরকারকে বিদায় করতে হবে। আমরা বলতে চাই, সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাজপথে নেমে জনগণের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য এক দফার আন্দোলনে শরিক হতে হবে। দলমত নির্বিশেষে সকলকে রাজপথে নেমে এই অবৈধ হাসিনার সরকারের পতন ঘটিয়ে নিরপেক্ষ নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। পুলিশের অবস্থান দেখে মনে হচ্ছে পুরো ঢাকা শহর বিএনপি’র দখলে। আপনারা এভাবে কি আওয়ামী লীগকে রক্ষা করতে পারবেন?

বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, পুলিশ দলের নেতাকর্মীদের সমাবেশে আসতে দেয়নি। নেতাকর্মীদের পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করে ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছে। পথচারীদের ফুটপাথ ব্যবহার করতেও দেয়নি পুলিশ।

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান এদেশের মানুষের হৃদয়ের মধ্যে চির জাগরূক। কয়েকজন মাফিয়া তার খেতাব কেড়ে নেবে কি নেবে না- এটা দিয়ে জিয়ার ঐতিহাসিক অক্ষয় অবদানকে মুছে ফেলা যাবে না।

ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপি’র উদ্যোগে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন বিএনপি’র কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কমিটির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান। প্রতিবাদ সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব এডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম বাবুল প্রমুখ।

এ জাতীয় আরো খবর