1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : Daily Khabor : Daily Khabor
  3. [email protected] : shaker :
  4. [email protected] : shamim :
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০২:৫১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
অক্টোবরের শেষে ফেসবুকের নাম বদল সরকারি চাকরির প্রশ্ন ফাঁসে সর্বোচ্চ ১০ বছর কারাদণ্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব, বিভ্রান্তি ছড়ালেই ব্যবস্থা স্ত্রী ও ভাইয়ের হিসাবে কোটি কোটি টাকা লেনদেন অডিট রিপোর্টের ওপর নির্ভর করছে ইভ্যালির ভাগ্য স্বাস্থ্যে চাকরি করে নজরুলের সম্পদ হয়েছে ৬ কোটি ১৭ লাখ টাকা মাত্র পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী আজ ফাইন্যান্সিয়াল টাইমসে প্রধানমন্ত্রীর নিবন্ধ: উন্নত দেশগুলো ক্ষতিগ্রস্থদের গুরুত্ব দিচ্ছে না ই-কমার্স প্রতারণা:১১ প্রতিষ্ঠানের অ্যাকাউন্টে মাত্র ১৩৬ কোটি,গ্রাহকের পাওনা ৫ হাজার কোটি টাকা বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ের ৪২ হাজার ২৯৮টি পদ বিলুপ্ত

সংবাদ শিল্পে শতকোটি ডলার বিনিয়োগ করবে ফেসবুক

ডেইলি খবর নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
  • ১৮৭ বার পড়া হয়েছে

বৈশ্বিক সোস্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক সংবাদ শিল্পের সমর্থনে ১০০ কোটি ডলার বিনিয়োগের পরিকল্পনা নিয়েছে। আগামী তিন বছরে এ অর্থ বিনিয়োগ সম্পন্ন করবে মার্কিন প্রতিষ্ঠানটি। একই সঙ্গে গত বুধবার প্রতিষ্ঠানটি জানায়, অস্ট্রেলিয়ার ‘মিডিয়া বারগেইন আইন’-এর প্রতিবাদে দেশটিতে নিজেদের প্লাটফর্মে সংবাদ দেখানো এবং শেয়ারের সুবিধা বন্ধ করাটা ভুল সিদ্ধান্ত ছিল। খবর ইয়াহু টেক।

বৈশ্বিক সংবাদ শিল্পের সমর্থনে শতকোটি ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দিয়ে সার্চ জায়ান্ট গুগলের পথে হাঁটছে ফেসবুক। গুগল গত বছর অক্টোবরের শেষদিকে সংবাদ প্রকাশকদের সমর্থনে আগামী তিন বছরে শতকোটি ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দিয়েছিল।

অস্ট্রেলিয়ার ব্যবহারকারীদের জন্য সংবাদ কনটেন্ট দেখানো এবং শেয়ার করার সুবিধা পুনরায় চালুর ঘোষণা দিয়েছে ফেসবুক। দেশটির সরকারের প্রস্তাবিত ‘মিডিয়া বারগেইন আইন’-এ সংশোধনী আনার ঘোষণার পর এমন ইঙ্গিত দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। গত সপ্তাহের শেষদিকে এ আইনের প্রতিবাদে অস্ট্রেলিয়ায় নিউজফিড থেকে সব ধরনের সংবাদ সরিয়ে ফেলা এবং টাইমলাইনে শেয়ার করার সুবিধা বন্ধ করেছিল ফেসবুক।

সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার অর্থমন্ত্রী জোশ ফ্রাইডেনবার্গ বলেন, ফেসবুক ব্যবহারকারীরা শিগগিরই টাইমলাইনে বিভিন্ন প্রকাশকের সংবাদ দেখতে এবং শেয়ার করতে পারবেন। প্রস্তাবিত মিডিয়া বারগেইন আইনে কিছু সংশোধনী আনা হচ্ছে। যে কারণে কঠোর অবস্থান থেকে সরে এসে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে আগ্রহ দেখিয়েছে।

অস্ট্রেলিয়া সরকারের প্রস্তাবিত আইনটির লক্ষ্য ছিল—ফেসবুক ও গুগলের মতো অনলাইন জায়ান্টগুলোর প্লাটফর্মে সংবাদ প্রদর্শনের জন্য সংবাদ প্রকাশকদের সঙ্গে বাণিজ্যিক চুক্তি থাকতে হবে। ডিজিটাল প্লাটফর্মগুলোর কারণে সংবাদ মাধ্যমগুলোর আয় কমে যাওয়ায় এমন পদক্ষেপ নিচ্ছে দেশটি।
অস্ট্রেলিয়া সরকার প্রস্তাবিত মিডিয়া বারগেইন আইনে সংশোধনী আনার ঘোষণার পর পরই দেশটির সংবাদ প্রকাশকদের সঙ্গে একটি চুক্তি সম্পন্ন করেছে ফেসবুক। এ চুক্তি সম্পন্নের কয়েকদিন পরই এবার সংবাদ শিল্পের সমর্থনে শতকোটি ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা এল প্রতিষ্ঠানটির।

ডিজিটাল প্লাটফর্মের উল্লম্ফনে ঐতিহ্যবাহী বৈশ্বিক সংবাদ শিল্প টানা কয়েক দশক ধরে খারাপ সময় পার করছে। নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণে সৃষ্ট কভিড-১৯ মহামারী এতে বাড়তি মাত্রা যোগ করেছে। অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তাবিত আইনের আওতায় স্থানীয় সংবাদ প্রকাশকরা আর্থিক সংকট কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিশ্বজুড়ে সংবাদ প্রকাশকদের অভিযোগ, তাদের ব্যয়ে তৈরি সংবাদ কনটেন্ট দিয়ে ইন্টারনেট জায়ান্টগুলো ধনী হচ্ছে। কয়েক দশক ধরেই এমন অভিযোগ করা হচ্ছে। কারণ হলো রাজস্ব ভাগাভাগি না করলেও বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনজুড়ে দেয়া বিজ্ঞাপন থেকে ফেসবুক-গুগলের মতো ইন্টারনেট জায়ান্টগুলো প্রতি বছর বড় অংকের অর্থ উপার্জন করছে।

ফেসবুকের আগে অ্যালফাবেট ইনকরপোরেশন নিয়ন্ত্রিত গুগল অস্ট্রেলিয়ায় সেবা বন্ধের হুমকি দিলেও পরে দেশটির প্রকাশকদের সঙ্গে কনটেন্ট শেয়ারিং চুক্তি করেছে। যদিও চুক্তিটির আর্থিক লেনদেন বিষয়ে কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। অস্ট্রেলিয়ায় সংবাদ শেয়ারিং বন্ধের বিষয়ে ফেসবুকের যুক্তি ছিল—গুগল সার্চ ফলাফল আরো উন্নত করতে অনুমতি ছাড়াই সংবাদ মাধ্যমের কনটেন্ট ব্যবহার করে আসছে। কিন্তু গণমাধ্যমগুলো নিজেদের পাঠক বাড়াতে স্বেচ্ছায় ফেসবুকের প্লাটফর্মে নিজেদের কনটেন্ট শেয়ার করে আসছে। কাজেই অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তাবিত আইনটি তাদের ব্যবসার জন্য নেতিবাচক। যে কারণে জটিলতা এড়াতে তারা দেশটিতে নিজেদের প্লাটফর্মে সংবাদমাধ্যমগুলোর কনটেন্ট শেয়ারিং বন্ধ রেখেছে।

বিজ্ঞাপন

এ জাতীয় আরো খবর