1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : Daily Khabor : Daily Khabor
  3. [email protected] : rubel :
  4. [email protected] : shaker :
  5. [email protected] : shamim :
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৫২ পূর্বাহ্ন

সম্পদের হিসাব দিতে চান না আমলারা

ডেইলি খবর নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় বুধবার, ১৮ আগস্ট, ২০২১
  • ১০৭ বার পড়া হয়েছে

ডেইলি খবর ডেস্ক: সম্পদের হিসাব দিতে চান না আমলারা। দীর্ঘ চার বছর পর আজ বুধবার ১৮ াাগস্ট প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের নিয়ে সচিব সভা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। সভায় সাতটি এজেন্ডা রাখা হয়েছে। এছাড়া সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সম্পদের হিসেব দিবে হবে সরকারের এমন সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার চাওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি এই সভায় উপস্থিত থাকবেন।সচিব সভার প্রস্তুতি পর্যালোচনা ও করণীয় নির্ধারণে গত বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সম্পদের হিসেব দিবে হবে সম্প্রতি সরকার এমন সিদ্ধান্ত দিয়েছে। সরকারে এ রকম সিদ্ধান্তে আমলারা কিছুটা হলেও উদ্বিগ্ন। এটা বন্ধ করার জন্য কর্মকর্তারা সরকারের সাথে দরবার করেছেন বলেও জানা গেছে।সংশ্লিষ্টরা জানান, সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সম্পদের হিসাব দিতে সম্প্রতি নতুন করে প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার। এ নিয়ে আমলাদের মধ্যে কিছুটা উদ্বেগ রয়েছে। এ নিয়ে সচিব সভায় আলোচনা তোলা হবে।সবশেষ ২০১৭ সালের জুলাইয়ে সচিব সভা অনুষ্ঠিত হয়। চার বছর পর গত ৪ জুলাই সচিব সভা হওয়ার কথা ছিল। তবে করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ওই সভা স্থগিত করা হয়।মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়,এবারের সভায় সাতটি এজেন্ডা রাখা হয়েছে। এজেন্ডাগুলো দেশের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ বিষয়ে আলোচনা, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে গৃহীত পদক্ষেপ পর্যালোচনা, কভিড-১৯ পরবর্তী উত্তরণ এবং অর্থনীতিকে সুসংহত রাখার জন্য করণীয়।এজেন্ডায় আরো রয়েছে, আর্থিক বিধি-বিধান অনুসরণ, উন্নয়ন প্র্রকল্প বাস্তবায়নে স্বচ্ছতা নিশ্চিতকরণ এবং ভূমিকম্প,অগ্নিকান্ড, বন্যা ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি বিষয়ে আলোচনা এবং বিবিধ প্রশাসনিক বিষয়।সচিব-সভার প্রস্তুতিমূলক সভায় সরকারের শীর্ষ কর্মকর্তারা অংশ নেন। এছাড়া সাত এজেন্ডার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও বিভাগের কার্যপত্র তৈরির কার্যক্রমের অগ্রগতি পর্যালোচনা,সভায় কে কী বিষয়ের ওপর বক্তব্য দেবেন তা নিয়ে আলোচনা করা হয়।সংশ্লিষ্টরা আরো জানান,এবারের সভায় করোনাকালের অর্থনৈতিক ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা ও উন্নয়ন কাজের পরিকল্পনার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। করোনাকালে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং দায়িত্ব পাওয়া সচিবরা কী কাজ করেছেন সেগুলোও আলোচনায় থাকতে পারে। একাধিক রাজনীতিবিদ মনে করেন এমপি-মন্ত্রীরা সম্পদের দিতে অনিহা না থাকল আমলাদের কেন? সমস্যাটা কোথায়?

বিজ্ঞাপন

এ জাতীয় আরো খবর